হয়রানির দিন শেষ! রেশন তুলতে আর লাগবে না আঙ্গুলের ছাপ, চালু হল নতুন নিয়ম

সরকার আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া মানুষদেরকে সাহায্য করার লক্ষ্যে আজ থেকে বহুদিন আগে রেশন ব্যবস্থা চালু করেছিল। মানুষ আজও বিভিন্ন ক্যাটাগরি অনুসারে, প্রতি মাসে রেশন পেয়ে থাকে। তবে চিন্তার বিষয় হলো, বেশ কিছু অসাধু ব্যক্তিদের জন্য দুঃস্থ গরিব মানুষরা এই সরকারি সুবিধা থেকে ক্রমাগত বঞ্চিত হচ্ছে। রাজ্যের কিছু কিছু জায়গায় তো এই অসাধু ব্যক্তিরা ভুয়ো আধার কার্ড বাঁ কার্ড জালিয়াতির মাধ্যমেও রেশন তুলে নিচ্ছে।

এমনকি মৃত ব্যক্তিদের কার্ড স্যালেন্ডার না করেও, রেশন তোলার মতো নজির অদেখা নয়। কিছু কিছু ক্ষেত্রে তো এই সমস্ত ঘটনার মধ্যে, রেশন ডিলারদের কেও যুক্ত থাকতে দেখা যায়। এই ধরনের জালিয়াতি ও জোচ্চুরি বন্ধ করার লক্ষ্যে সরকার বায়োমেট্রিক বাঁ আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে রেশন তোলার ব্যবস্থা চালু করেছিল।

তবে বর্তমানে রেশন তোলার সময় বিভিন্ন গ্রাহকদের আঙ্গুলের ছাপ মিলছে না। এমনকি OTP যাচাইকরণের মাধ্যমেও রেশন তোলার সু-ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল। তবে সময় মতো ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড না আশার কারণে, গ্রাহক এবং ডিলার উভয়ই সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। তাই বর্তমানে খাদ্য সরবরাহ দপ্তর দুর্নীতি মুক্ত ও সরল পরিষেবা দিতে আঙুলের ছাপের পরিবর্তে রেটিনা স্ক্যান বিকল্পর পথে হাটছে।

রেটিনা স্ক্যানের পথে হাটছে

শুধু পরিকল্পনা নয়, রাজ্যের বেশকিছু ন্যায্য মূল্যের দোকানগুলিতে রেটিনা স্ক্যান করা শুরু হয়ে গিয়েছে। খাদ্য সরবরাহ দপ্তর জানিয়েছে, বর্তমানে বায়োমেট্রিক আইডেন্টিফিকেশনের পরেই গ্রাহকরা তাদের রেশন তুলতে পারতো। এই আঙুলের ছাপ এবং ওটিপি ব্যবস্থার কারণে দুর্নীতিকে অনেকখানি মুক্ত করা গেলেও, বিভিন্ন মানুষকে মাঝে মধ্যেই ব্যাপক হয়রানীর মুখে পড়তে হয়।

কারণ, বেশ কিছু বছর পরে পরে মানুষের ফিঙ্গারপ্রিন্ট পরিবর্তিত হয়। সে ক্ষেত্রে তাদের আধার কার্ডের সঙ্গে ফিঙ্গারপ্রিন্ট পুনরায় আপডেট করা প্রয়োজন। যে আপডেটটি বেশিরভাগ মানুষ সচরাচর করে না। এমনকি বিভিন্ন কাজকর্মের সময় অনেক সময় আঙুলে কাটাকুটি পড়ে। এই সমস্ত কারণগুলোর জন্য, অনেক সময় ফিঙ্গারপ্রিন্ট ম্যাচ করেনা। বিশেষ করে বৃদ্ধরা সব থেকে বেশি এই সমস্যার সম্মুখীন হয়। তবে চোখের রেটিনা কখনোই বদলায় না। তাই সরকার এবং খাদ্য সুরক্ষা দপ্তরের তত্ত্বাবধানে নতুন এই উদ্যোগ।

সরকার বায়োমেট্রিকের সঙ্গে রেটিনা স্ক্যান ডাটাও যুক্ত করছে। যাতে করে গ্রাহকরা কোনরকম সমস্যা এবং হয়রানি ছাড়াই নিজেদের হকের রেশন কালেক্ট করতে পারে। পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু মহাকুমাতে এই কাজ শুরু হলেও, সমস্ত জেলায় এখনও ছড়িয়ে পড়েনি।

বর্তমানে আপনার যদি রেশন তুলতে কোন রকম সমস্যা নাও হয়, তারপরও আপনি আপনার রেটিনা স্ক্যানের ডেটা আপডেট করিয়ে রাখবেন। এক্ষেত্রে পরবর্তীতে আপনাকে হয়রানি হওয়ার মতো ঘটনার শিকার হতে হবে না।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top

AdBlocker Detected!

https://mynewsmedia.co/wp-content/uploads/2023/01/AdBlock-Detected.png

Dear visitor, it seems that you are using an adblocker please take a moment to disable your AdBlocker it helps us pay our publishers and continue to provide free content for everyone.

Please note that the Brave browser is not supported on our website. We kindly request you to open our website using a different browser to ensure the best browsing experience.

Thank you for your understanding and cooperation.

Once, You're Done?