প্যান কার্ড বানাতে আর ছোটাছুটি করতে হবে না! সরকারের নতুন নিয়মে ঘরে বসে বানিয়ে নিন

আজকের যুগ হল কার্ডের যুগ। ডিজিটালাইজেশনের এই যুগে নিজেদের ব্যাক্তিগত জরুরী ডেটা, পরিচয়পত্র সবই এখন কার্ড বন্দী। আমাদের প্রত্যেকের সঙ্গেই এখন থাকে বিভিন্ন রকমের দরকারি কার্ড যা আমাদের সরকারি, বেসরকারি সব ক্ষেত্রেই লাগে। আধার, প্যান, ভোটার, রেশন আরও হরেক রকমের কার্ডের মালিক এখন সকলেই।

এর মধ্যে প্যান‌ কার্ডের প্রয়োজনীয়তা এখন‌ দিন‌ দিন‌ বাড়ছে। বিশেষতঃ ব্যবসায়িক লেনদেনে প্যান কার্ড তো খুবই জরুরি। এই প্যান‌ কার্ড তৈরির জন্য আগে অ্যাপ্লাই করতে হয়। কিভাবে আপনি নিজে নিজেই আপনার প্যান কার্ডের জন্য অ্যাপ্লাই করতে পারবেন‌ তা এই আর্টিকেলে দেখে নিন। সরকার আপনাকে বাড়িতে বসেই প্যান কার্ডের জন্য আবেদন করার সুযোগ দিচ্ছে। আর কথা না বাড়িয়ে চলুন দেখে নেওয়া যাক। 

  • 1. প্রথমে https://www.onlineservices.nsdl.com/paam/endUserRegisterContact.html এই লিংকে যেতে হবে। 
  • 2. এরপরে Application Type -এ New Pan- Indian Citizen (Form 49A) এই অপশনটি এবং Category অপশনে Individual সিলেক্ট করতে হবে। 
  • 3. তারপর নিজের নাম, বার্থডেট, মোবাইল নম্বর, ইমেল আইডি দিয়ে Terms অপশনে টিক করে captcha code submit করতে হবে। 
  • 4. হয়ে যাবে আপনার অনলাইন প্যান রেজিস্ট্রেশন।‌ এরপর স্ক্রীনে দেওয়া টোকেন নম্বর টুকে রাখবেন। তারপর Continue with Pan Application Form – এ ক্লিক করতে হবে। 
  • 5. এরপর প্যান‌ কার্ডের আবেদনের জন্য ডক্যুমেন্টস সাবমিট করতে হবে এবং এর জন্য তিনটে অপশন থাকবে:
    • i) Sumbit digitally through e-kyc & e-sign paperless ( অনলাইনে e-kyc ও e-sign করে আবেদন করতে পারেন)
    • ii) Submit scanned Images through e-sign (নিজের মোবাইল থেকে ছবি আপলোড করতে পারবেন)
    • iii) Forward Application Document physically ( নিজের আবেদনপত্র গিয়ে জমা করে আসতে হবে)
  • এর মধ্যে দ্বিতীয় অপশনটি সহজ অপশন। 
  • 6. তারপর Whether Physical Pan Card is required – অপশনে Yes এ ক্লিক করতে হবে। এরপর নীচে আপনার আধার কার্ডের শেষ‌ চারটি ভিজিট লিখে আপনার আধার কার্ডে নামের মতো নাম লিখতে হবে। 
  • 7. তারপর বাবা বা মায়ের মধ্যে যার নাম রাখতে চান সেটি টিক করে Next অপশন সিলেক্ট করতে হবে। 
  • 8. এবার আসবে Source of Income অপশন। সেটি ফিল আপ করে নিজের বাড়ি এবং অফিসের ঠিকানা (যদি থাকে) দিতে হবে। নীচে Representative Assessee -এ যদি ১৮ বছরের কম কারোর প্যান কার্ড বানান তাহলে Yes -এ ক্লিক করবেন এবং ১৮ বছরের বেশী বয়সী কোনো ব্যক্তির প্যান কার্ডের জন্য আবেদন করলে No তে ক্লিক করে Next-এ যাবেন।
  • 9. তারপর Save Draft অপশনে এখনও অবধি করা যাবতীয় ফিল আপ সেভ করে নীচে নিজের শহরের ইনকাম ট্যাক্স অফিস সিলেক্ট করে Next অপশনে যেতে হবে। 
  • 10. এরপর হল ডক্যুমেন্ট আপলোড‌। এখানে মোট তিন ধরণের ডক্যুমেন্টস আপলোড করতে হবে যেমন — Proof of Identity (পরিচয়ের প্রমান), Proof of Address (বাসস্থানের প্রমান), Proof of Date of Birth (জন্মতারিখের প্রমান)। তিনটি ক্ষেত্রেই আধার কার্ড সিলেক্ট করা যায় বা অন্য ডক্যুমেন্ট ও দেওয়া যাবে। যে ডক্যুমেন্টস অপশন সিলেক্ট করবেন সেটি নীচে আপলোড করতে হবে এবং নিজের পাসপোর্ট সাইজ ফটো ও সিগনেচার আপলোড করতে হবে। 
  • 11. এরপর Submit ও Proceed অপশনে ক্লিক করে অনলাইনে 106.90 টাকা দিতে হবে। ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ড, UPI সহ যেকোনো মাধ্যমে আপনি এটি দিতে পারেন। 
  • 12. তারপর Continue With e-sign এ ক্লিক করে নিজের আধার নম্বর লিখতে হবে আধার নম্বরের সঙ্গে লিংক করা মোবাইল নম্বরে পাওয়া OTP লিখে Verify OTP অপশনে ক্লিক করতে হবে।

এরপর আপনার মোবাইলে Acknowledgement Slip আসবে, আপনি চাইলে সেটি ডাউনলোড ও করে নিতে পারেন‌। প্যান কার্ড আবেদনের 3-4 দিনের মধ্যে ইমেলে কনফারমেশন এবং ই-প্যান‌ কার্ড চলে আসবে। এছাড়া আবেদন করার 7-8 দিনের মধ্যে মেনশন করা অ্যাড্রেসে বাই পোস্ট অরিজিনাল প্যান কার্ড এসে যাবে।

Scroll to Top

AdBlocker Detected!

https://mynewsmedia.co/wp-content/uploads/2023/01/AdBlock-Detected.png

Dear visitor, it seems that you are using an adblocker please take a moment to disable your AdBlocker it helps us pay our publishers and continue to provide free content for everyone.

Please note that the Brave browser is not supported on our website. We kindly request you to open our website using a different browser to ensure the best browsing experience.

Thank you for your understanding and cooperation.

Once, You're Done?